মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর 

আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, হবিগঞ্জ 

সিটিজেন চার্টার

(পাসপোর্টের ক্ষেত্রে)

বাংলাদেশী নাগরিক এবং বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশী নাগরিকদের পাসপোর্টপ্রদানের লক্ষে বাংলাদেশের ৬৪ টি জেলার মধ্যে মোট ৬৭ টি অফিসে মেশিনরিডেবল পাসপোর্টের কার্যক্রম চালু করা হয়েছে।তাছাড়া ডিপ্লোমেটিক পাসপোর্টের জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় ও ৫৮ টি বিদেশস্থ  বাংলাদেশ দুতাবাসের মধ্যে ৪৫ টি দুতাবাসে Enrolment Centre চালু আছে এবং বাকি ১৩টি তে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট প্রদানেরকার্যক্রম চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।এছাড়াও প্রস্তাবিত ০৭টি নতুনদুতাবাসেও অচিরেই মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট প্রদানের কার্যক্রম চালু করাহবে।বিদ্যমান অফিসগুলোতে হাতে লেখা পাসপোর্টের মেয়াদ বৃদ্ধির ব্যবস্থাওরয়েছে।এ জন্য প্রার্থীকে নির্ধারিত আবেদনপত্র পূরণ করতে হয় এবং আবেদনপত্রেউল্লেখিত কাগজপত্র  সাথে সংযুক্ত করতে হয়।বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরতিনটি শ্রেণীতে পাসপোর্টপ্রদান করে থাকে।১) সবুজ বর্ণের সাধারন পাসপোর্ট ২)নীল বর্ণের অফিসিয়াল পাসপোর্ট ৩) লাল বর্ণের ডিপ্লোমেটিক পাসপোর্ট। কোনআবেদনকারী ঘরে বসে অনলাইনে পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করতে পারবেন । ঠিকানা: (www.passport.gov.bd) ।

 

 

 

নতুন MRPপাসপোর্ট প্রাপ্তি এবং ইস্যুকৃত হাতে লেখা পাসপোর্ট নবায়ন সংক্রান্ত সেবাসমূহ নিম্নরূপঃ

আবেদনের প্রকৃতি

করণীয়

ফিসের পরিমান (টাকায়)

প্রাপ্তির সময়

মমত্মব্য

নতুন/ ১২(বার) বছর উত্তীর্ণ পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন

ক) দুই কপি আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।

খ) আবেদনপত্রের সাথে পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবি সংযুক্ত করতে হবে।

জরুরী

৬৯০০/-

পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে ০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

সাধারণ

৩৪৫০/-

পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে ১৫(পনের) কর্মদিবসের মধ্যে   প্রাপ্য।

 

দশ বছর উত্তীর্ণ পাসপোর্ট এর ক্ষেত্রে পাসপোর্টের জন্য আবেদন।

আবেদনপত্রের সাথে  পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবি সংযুক্ত করতে হবে।

জরুরী

৬৯০০/-

০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

সাধারণ

৩৪৫০/-

১৫(পনের)  কর্মদিবসের পর প্রাপ্য।

 

হারানো পাসপোর্টের বিপরীতে পাসপোর্টের জন্য আবেদন।

এক্ষেত্রে জিডির কপিসহ আবেূন করতে হবে।

জরুরী

৬৯০০/-

০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

পুরাতন রেকর্ড যাচাই করে সঠিক পাওয়া গেলে হারানো পাসপোর্টের বিপরীতে নতুন পাসপোর্ট ইস্যু করা হয়।

সাধারণ

৩৪৫০/-

১৫(পনের)  কর্মদিবসের মধ্যে।

পাতা শেষ/ছবির মিল নেই/পাতা নষ্ট হবার কারণে পাসপোর্টের জন্য আবেদন।

আবেদনপত্রের সাথে  পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবি সংযুক্ত করতে হবে।

জরুরী

৬৯০০/-

০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

সাধারণ

৩৪৫০/-

১৫(পনের)  কর্মদিবসের মধ্যে।

 

সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, কর্পোরেশনের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের আবেদন।

(১)সরকারী প্রতিষ্ঠানে কর্মরত এবংআধাসরকারী প্রতিষ্ঠান, রাষ্টীয়কর্পোরেশন, পূর্ণ রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান, স্বায়ত্বশাসিত ও স্থানীয়  সরকার প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সরকারী  কর্মকর্তা/কর্মচারীদের যথাযথ কর্তৃপক্ষেরঅনুমোদন ও প্রয়োজনীয় ফি গ্রহণসাপেক্ষেএবং             (২) সরকারী কাজেবিদেশে গমনের ক্ষেত্রে ব্যতীতসরকারী আদেশ/জিওর ভিত্তিতে তাদের অনুকূলেঅফিসিয়াল পাসপোর্ট ইস্যু করাযাবে।অফিসিয়াল পাসপোর্ট সর্বোচ্চ ০৫ (পাঁচ)বৎসর মেয়াদী হবে।

অফিসিয়াল পাসপোর্ট  ইস্যু/গ্রহণের জন্য পুলিশ প্রতিবেদনের প্রয়োজন নেই।

জরুরী

৩৪৫০/-

( জিওর ক্ষেত্রে ফি ব্যতীত )

০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, কর্পোরেশনেরকর্মকর্তা/কর্মচারীদেরস্ত্রী/স্বামীএবং তাদের ১৫ বছরের নীচের সমত্মানদেরপাসপোর্টের আবেদন।

মাননীয় সংসদ সদস্য, তিনটি পার্বত্য জেলাপরিষদের চেয়ারম্যান ওসদস্যবৃন্দ, সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভার মেয়র ওকাউন্সিলর, উপজেলা পরিষদেরচেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদেরচেয়ারম্যান, সকলপর্যায়ের সামরিক- বেসামরিক সরকারী কর্মকর্তা/কর্মচারী, সংশিস্নষ্টপ্রতিষ্ঠান/সংস্থার প্রত্যয়ন সাপেক্ষেআধাসরকারী, স্বায়ত্তশাষিত  রাষ্ট্রায়ত্ব সংস্থায় কর্মরত স্থায়ী কর্মকর্তা/কর্মচারী, অবসরপ্রাপ্তসরকারী কর্মকর্তা/কর্মচারী ও তাদের স্ত্রী/স্বামী এবংসরকারীকর্মকর্তা/কর্মচারীর স্ত্রী/স্বামীসহ  ১৫ (পনের) বৎসরের কম বয়সীসমত্মানদেরজন্য হাতে লেখা পুরাতন পাসপোর্টের নবায়ন ও নতুন পাসপোর্ট ( হাতেলেখা/MRP ) ইস্যুর ক্ষেত্রে পুলিশ প্রতিবেদনের প্রয়োজন নেই।এছাড়া, সকলক্ষেত্রে হাতেলেখা পুরাতন পাসপোর্টের নবায়ন এবং হাতে লেখা পুরাতন পাসপোর্টসমর্পণ করেতার পরিবর্তে হাতে লেখা নতুন বা মেশিন রিডাবল পাসপোর্ট  ইস্যু/গ্রহনেরক্ষেত্রেও পুলিশ প্রতিবেদনের প্রয়োজন হবে না।অন্যান্য সকলক্ষেত্রে নতুনহাতে লেখা বা মেশিন রিডাবল পাসপোর্ট ইস্যুর ক্ষেত্রে পুলিশপ্রতিবেদনআবশ্যক হবে।  

  জরুরী

৩৪৫০/-

০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, কর্পোরেশনের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের ১৫ বছরের অধিক সমত্মানদের পাসপোর্টের আবেদন।

আবেদনপত্রের সাথে কেবলমাত্র নির্ভরশীল সমত্মানদের ক্ষেত্রে বাবা/মায়ের প্রত্যয়নপত্র জমা দিতে হবে।

জরুরী

৬৯০০/-

পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে ০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

সাধারণ

৩৪৫০/-

পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে ১৪(চৌদ্দ) কর্মদিবসের পর প্রাপ্য।

 

শিক্ষা সফরে বিদেশে গমন ইচ্ছুক ছাত্র/কর্মচারীদের ক্ষেত্রে।

আবেদনপত্র অবশ্যই দলগতভাবে হতে হবে এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানের প্রত্যয়নপত্র সংযুক্ত থাকতে হবে।

জরুরী

৬৯০০/-

পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে ০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

সাধারণ

৩৪৫০/-

পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে ১৫(পনের)  কর্মদিবসের মধ্যে।

 

অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারীদের ক্ষেত্রে।

পেনশন অর্ডার কিংবা পেনশন বহির ফটোকপি সংযুক্ত করতে হবে।

জরুরী

৩৪৫০/-

০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

হাতে লেখা পুরাতন পাসপোর্ট  সমর্পণের ক্ষেত্রে

নতুন পাসপোর্টের জন্য নির্ধারিত ফি এবং মেয়াদ উর্ত্তীণের পর নবায়ন করা না হয়ে থাকলে নবায়ন ফি প্রদান করতে হবে।

জরুরী

৬৯০০/-

আবেদনপত্র জমা দেয়ার ০৩(তিন) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

কোন পাসপোর্টের নবায়ন/সংযোজন এরক্ষেত্রে জাল সনাক্ত হলে উক্ত পাসপোর্টবাতিল করে নতুন পাসপোর্ট ইস্যু করাহয়(নতুন পাসপোর্ট ও নবায়ন উভয় ফিগ্রহণ সাপেক্ষে)।

সাধারণ

৩৪৫০/-

আবেদনপত্র জমা দেয়ার ০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

হাতে লেখা পাসপোর্টের নবায়নের ক্ষেত্রে

হাতে লেখা পাসপোর্টের নবায়নের জন্য  নবায়ন ফি প্রদান করতে হবে।

জরুরী

৫৭৫/- প্রতি বছর

আবেদনপত্র জমা দেয়ার ০৩(তিন) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

সাধারণ

৩৪৫/-

প্রতি বছর

আবেদনপত্র জমা দেয়ার ০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

সংযোজন (সংশিস্নষ্ট ডকুমেন্ট সাপেক্ষে)

 সংযোজন ফি প্রদান করতে হবে।

জরুরী

৫৭৫/-

আবেদনপত্র জমা দেয়ার ০৩(তিন) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

কোন পাসপোর্টের নবায়ন/সংযোজন এর ক্ষেত্রে জাল সনাক্ত হলে উক্ত পাসপোর্ট বাতিল

 

 

করে নতুন পাসপোর্ট ইস্যু করা হয়(নতুন পাসপোর্ট ও নবায়ন উভয় ফি গ্রহণ সাপেক্ষে)।

সাধারণ

৩৪৫/-

আবেদনপত্র জমা দেয়ার ০৭(সাত) কর্মদিবসের মধ্যে প্রাপ্য।

 

 

 

 

 

উলেস্নখ্য যে, আবেদনকারী অবশ্যই বায়ো-এনরোলমেন্ট সম্পন্ন করার পরপাসপোর্ট ডেলিভারি নেয়ার জন্য একটি রশিদ পাবেন। প্রদত্ত রশিদের তথ্য সমূহভালভাবে যাচাই করে দেখবেন , কোন ভুল তথ্য প্রিন্ট হয়েছে কিনা। যদি কোন ভুলথাকে সাথে সাথে অফিসে কর্তব্যরত ব্যাক্তিকে অবহিত করম্নন। পরবর্তীতেপাসপোর্টে কোন তথ্য ভুল প্রিন্ট হয়ে আসলে কর্তৃপক্ষ কোন দায়ভার গ্রহনকরবে না।